Full width home advertisement

Post Page Advertisement [Top]

ফের ভারত বিরোধিতা করতে গিয়ে রাষ্ট্রসংঘে ধাক্কা খেল চিন। পাকিস্তানের করাচি স্টক এক্সচেঞ্জ হামলায় নিরাপত্তা পরিষদে (UNSC) চিনা বিবৃতি পেশে বিলম্ব ঘটাল জার্মানি (Germany) ও আমেরিকা (US)। সম্প্রতি, করাচি স্টক এক্সচেঞ্জ হামলায় ভারতের (India) হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তারপরই রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ওই হামলার নিন্দায় একটি বিবৃতি পেশ করার প্রস্তুতি শুরু করে চিন। মার্কিন সময় মতে মঙ্গলবার সকালে পেশ করা ওই খসড়া প্রস্তাবে বলা হয়, নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা মনে করেন, সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপে যুক্ত, তাদের আয়োজক, অর্থ জোগানদার ও প্রচারকদের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো উচিত। এই ঘটনায় সদস্যরা পাক সরকারের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করবে যাতে হামলায় যুক্তদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আইন ও সংশ্লিষ্ট নিরপত্তা পরিষদের প্রস্তাব অনুযায়ী ব্যবস্থাগ্রহণ করবে। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের “নীরবতা প্রক্রিয়া”-র (Under silence) অন্তর্গত এই বিবৃতি পেশ করে চিন (China)। এর অর্থ, নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে যদি কোনও দেশ এই বিবৃতিতে আপত্তি না তোলে, তাহলে তা গৃহীত হিসেবে ধরা হবে। বলা বাহুল্য, পাকিস্তানের অভিযোগকে সমর্থন করে ভারতের বিরুদ্ধে আঙুল তোলার চেষ্টা করে চিন। তবে বেজিংয়ের এই চাল ভেস্তে যায়। মঙ্গলবার বিকেল ৪টে নাগাদ জার্মানি আপত্তি জানায়। তারা স্পষ্ট করে দেয়, পাকিস্তানের দাবি একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। রাষ্ট্রপুঞ্জে চিনের দূত অবশ্য জার্মানির আপত্তি খারিজ করার পাল্টা দাবি তোলেন। তাদের বক্তব্য, সময়সীমা পার হওয়ার পর জার্মানির আপত্তি এসেছে। তারপরই বুধবার আপত্তি জানায় আমেরিকা। বিশ্লেষকদের মতে, বিলম্ব হলেও শেষমেশ বিবৃতিত পেশ হবে। তবে আমেরিকা ও জার্মানি স্পষ্ট করে দিয়েছে যে চিনের কূট অভিসন্ধি তারা সফল হতে দেবে না। আন্তর্জাতিক মঞ্চে এটা ভারতের বড় জয়। collected link : sangbadpratidin . in /world /germany-us-thwart-chinas-anti-india-move-at-unsc/

Bottom Ad [Post Page]