সোমবার, ১১ মে, ২০২০

ওয়েবসাইট, ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ও ওয়েব সার্ভিস এর মধ্যে পার্থক্য গুলো দেখে নিন।

পার্থক্য হিসাবে টেবিল করতে গেলে লাইনব্রেকজনিত সমস্যায় বোঝার ঝামেলা হয় তাই আলাদাভাবে প্যারা আকারে লিখছি।

ওয়েবসাইটঃ বুৎপত্তিগতভাবে ওয়েবসাইট হচ্ছে তথ্য প্রদর্শনের জন্য html ভাষায় রচিত কতকগুলো html ডকুমেন্ট বা ওয়েবপেজ যা ঈন্টারনেট প্রটোকল অনুসারে নেটওয়ার্কের মাধ্যমে দূরের কোন ডিভাইস থেকে এক্সেস করা যায়।

আধুনা, ওয়েবসাইট হচ্ছে তথ্য প্রদর্শন,ব্যবহার, কন্ট্রোল ইত্যাদির জন্য একগুচ্ছ সফটওয়ারের সমষ্টি যা ইউজারের চাহিদা অনুযায়ী তথ্য সরবরাহ করতে পারে। এই তথ্য সরবরায়ের প্রক্রিয়া ইন্টারনাল ও নেটওয়ার্ক ট্রান্সমিশনযোগ্য html,css.js যুক্ত ওয়েব ডকুমেন্ট সোর্স হিসাবে হয়।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পাবলিকের জন্য তথ্য সরবরাহ ও প্রদর্শন, প্রয়োজন মত ব্যবহার সংরক্ষন, মডিফিকেশন ইত্যাদি দুরের ডিভাইস থেকে করা যায়।

ওয়েব এপ্লিকেশনঃ সাধারন অর্থে ওয়েবকে নিয়ন্ত্রনের জন্য যেসকল সফটওয়ার ব্যবহার করা হয় তাদেরকে ওয়েব এপ্লিকেশন বলে।

কিন্তু ব্যবহারিক দিক থেকে স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজ দ্বারা রচিত যেসকল ছোট ছোট এক গুচ্ছ প্রোগ্রামের সমষ্টি যা ওয়েব সাইট তৈরি,নিয়ন্ত্রন,ইউজার ফাংশন সরবরাহ করতে পারে তাদেরকে ওয়েব এপ্লিকেশন বলে। যেমন বিভিন্ন CMS যথা wordpress, drupal, joomla, আবার node.js, laravel সহ বিভিন্ন ফ্রেমওয়ার্ক দ্বারা তৈরি এপ্লিকেশন যা ওয়েবসাইটের গঠন ও ইউজার ইন্টারফেজ ফাংশন, সিকিউরিটি, প্লাগিন ইত্যাদিও ওয়েব এপ্লিকেশোনের অন্তর্ভুক্ত। তবে লোকার কিছু ওয়েব এপ্লিকেশন আছে যা ওয়েব সফটওয়ার হিসাবে বিবেচিত, এপ্লিকেশন(apps) নয়। যেমন ডাটাবেজ, সার্ভার ইঞ্জিন।

অর্থাৎ সংক্ষেপে বলা যায় যে, যেসকল স্ক্রিপ্টিং প্রোগ্রাম দ্বারা একটি ওয়েবসাইটের ইউজার ফাংশন, ইন্টারফেজ, সিকিউরিটি, ফরম, পেজ, ডাটা টেবিল, রিপোর্ট তৈরির কাজ করা ও নিয়ন্ত্রন করা হয় তাকে ওয়েব এপ্লিকেশন বলে। ওয়েবসাইট সিস্টেম, চ্যাট সিস্টেম ইত্যাদিও ওয়েব এপ্লিকেশন।

ওয়েব সার্ভিসঃ ওয়েব সাইটের মাধ্যমে পাবলিকের জন্য যেসকল সেবা অফার বা প্রদান করা হয় সেগুলোকে ওয়েব সার্ভিস বলে।

ওয়েব সাইট তৈরি করে পাবলিকের মাঝে পাবলিশ করাটাই একটি ওয়েব সার্ভিস। কেননা আপনি সাইটে যায়ই রাখবে তা পাবলিকের জন্য। এটিকে সাধারন সার্ভিস বলে।

তবে এই সাধারন সার্ভিস ব্যতিত উদ্দেশ্যমূলক সেবাকে বিশেষ সেবা বলা হয়। যেমন পেপল ওয়েবসাইট দ্বারা জনগনের বা ব্যক্তির টাকা বা ডলার একজনের কাছ থেকে আরেকজনের কাছে পৌছে দেওয়া হচ্ছে ওয়েব সার্ভিস।

বিস্ময় ওয়েব সাইটটি জনগনের প্রশ্ন অনুযায়ী জ্ঞান অর্জনের সুযোগ প্রদান করে তাই প্রশ্ন ও উত্তর প্রদানও একটি ওয়েব সার্ভিস।

বর্তমানে ইকমার্স হচ্ছে লোকাল ও ওয়েবসার্ভিসের এক ধরনের হাইব্রিড ওয়েব সার্ভিস, কেননা টাকা লেনদেন, প্রচার, দেখাশুনা, পছন্দ, নির্বাচন ইত্যাদির সুযোগ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে হলেও বিনিময়ে পণ্য ডেলিভারী লোকালই হয়। এটিও ওয়েব সার্ভিস । কেননা এটি ওয়েব সাইটের মাধ্যমে দূরে বসে সকল প্রক্রিয়া সম্পর্ন করা হয়। শুধুমাত্র পন্য ট্রান্সমিশন লোকাল হয়।

Share This Post Now


Related Posts

ওয়েবসাইট, ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ও ওয়েব সার্ভিস এর মধ্যে পার্থক্য গুলো দেখে নিন।
4/ 5
Oleh