Full width home advertisement

Post Page Advertisement [Top]

সম্পতি করোনার পরেই বিশ্ব মিডিয়ায় আলোচিত বিষয় হল উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের হঠাৎ করে জনসম্মুখ ও ক্যামেরা থেকে অদৃশ্য হওয়ার ঘটনা। গত ১২ এপ্রিল উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সর্বশেষ ফটো তোলা হয়েছিল, এরপর থেকে তাকে আর কোন ছবি বা জনসম্মুখে দেখা যায় নি। কি কারণে তিনি গায়েব তা এখনো স্পষ্ট নয়।

ধারণা করে তার এই গায়েব হওয়া নিয়ে অনুমান করা হচ্ছে অনেক কিছুই। ১৪ এপ্রিল উত্তর কোরিয়ায় একটি পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষার কথা ছিল, আর উত্তর কোরিয়ার সবগুলো পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষায় কিম জং উন উপস্তিত থাকেন। আর ১৪ এপ্রিলের পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষার ভিডিও প্রকাশ করেনি উত্তর কোরিয়া, তবে কি এই পরীক্ষায় কোন সমস্যা হয়েছে কিম জং উনের? আরো ব্যাপার হল ১৫ এপ্রিল তার বড় ভইয়ের মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রথমবার তিনি উপস্তিতি হয়নি। এটা মহা ধুমধামের সাথে উত্তর কোরিয়ায় পালিত হয়। আবার অনেক মিডিয়া অনুমান করছে তার দেহরক্ষীরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। চিন থেকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের টিম উত্তর কোরিয়ায় গিয়েছে বলে জানা গেলেও চিন এটি অস্বীকার করেছে। কিম জং উনের যাতায়তের জন্য বুলেটপ্রুফ ট্রেন আছে, তিনি এই ট্রেনেই যাতায়ত করেন, এমনকি চিনে তার সফরের সময় ও তিনি ওই ট্রেনে করেই চিন গেছেন, ট্রাম্পের সাথে বৈঠকের সময় ওই ট্রেনেই তিনি সিঙ্গাপুর এসেছিলেন। সম্পতি মার্কিং স্যাটেলাইটের একটি ছবি প্রকাশ করা হয় যেখানে কিম জং উনের ট্রেনটি নালাহন শহরে গিয়েছিল, কিম জং উন যেখানে অবস্থান করেন তার আশে পাশেই এই ট্রিনটি থাকে। সম্পতি মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ডা ট্রাম্প বলেছে" কিম জং উন কোথায় আছে আমি ভালো ভাবে জানি, আশা করি তিনি যেখানে আছেন সুস্থ আছেন"।

কিম জং উন জনসম্মুখে আসেন হিরোর মতো, কখনো ঘোড়ায় চেপে ঘোড়া ছোটানো বা শক্তিশালি ব্যাক্তির মতো। তার কি এমন কিছু হয়েছে যে তিনি তার দূর্বল শরীর বা দূর্বলতা কাউকে দেখাতে চাছেন না? সঠিক ভাবে বলা যাচ্ছে না কারণ উত্তর কোরিয়ায় স্যোসাল নের্টওয়ার্ক থেকে শুরু করে সব তাদের নিজস্ব, যার কারণে তাদের খবর দেশের বাইরে আসা কঠিন।

সূত্র: প্রথমআলো, জিনিউজ, বিবিসি

Bottom Ad [Post Page]